বিনোদন

নুসরাতের ‘বিয়ে বিতর্ক’ পৌঁছে গেছে সংসদে !

বিয়ের ব্যাপারে সংসদে ভুল তথ্য দেওয়ার অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তৃণমূল
এমপি নুসরাত জাহানের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে স্পিকারকে চিঠি দিয়েছে উত্তরপ্রদেশের বদায়ুনের বিজেপির এমপি সঙ্ঘমিত্রা মৌর্য।

সঙ্ঘমিত্রার অভিযোগ, নিজের বৈবাহিক জীবন নিয়ে সংসদে ভুল তথ্য দিয়েছেন নুসরাত। তাই বসিরহাটের এমপির বিরুদ্ধে এথিকস কমিটির তদন্ত হোক।

প্রসঙ্গত, লোকসভার প্রোফাইলে নুসরাতের স্বামী হিসেবে নিখিল জৈনের নাম উল্লেখ করা রয়েছে। তবে সম্প্রতি নুসরাত দাবি করেন, তিনি নিখিলকে বিয়ে করেননি। এ নিয়ে সব মহলে সমালোচনা হয়। বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে রাজনৈতিক অঙ্গনেও।

সঙ্ঘমিত্রা চিঠিতে লেখেন, লোকসভায় ভুল তথ্য দিয়ে ইচ্ছাকৃত বেআইনি এবং অনৈতিক কাজ করেছেন। মিথ্যে তথ্য দিয়ে ভোটারদেরকেও বিভ্রান্ত করেছেন নুসরাত। এ ভাবে লোকসভাকেও কলঙ্কিত করেছেন তিনি। শপথ গ্রহণের সময় নিজের নাম নুসরাত জাহান রুহি জৈন বলে উল্লেখ করেছিলেন তৃণমূল এমপি নুসরাত। তবে কয়েক দিন আগে নিজের বৈবাহিক জীবন নিয়ে যে মন্তব্য তিনি করেছেন, তার সঙ্গে প্রোফাইলের তথ্য মিলছে না।

বিজেপি এমপির দাবি, ব্যক্তিগত জীবনে নুসরাত কী করছেন, তা নিয়ে কেউ নাক গলাচ্ছে না। তবে বৈবাহিক জীবন সম্পর্কে তার সাম্প্রতিক মন্তব্য ইঙ্গিত করছে যে, লোকসভায় তিনি ভুয়া তথ্য পেশ করেছিলেন। এটি অনৈতিক ও বেআইনি।

কয়েকদিন আগে নুসরাতের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ করেছিলেন বিজেপি’র সর্বভারতীয় আইটি শাখার প্রধান অমিত মালব্য। ২০১৯ সালে লোকসভায় বসিরহাটের সাংসদ হিসেবে নুসরাতের শপথ গ্রহণের ভিডিও পোস্ট করেছিলেন তিনি। সেখানে নুসরাত নিজের পরিচয় দিতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘আমি নুসরাত জাহান রুহি জৈন।’

উল্লেখ্য, গত ৯ জুন একটি বিবৃতিতে নুসরাত জানিয়েছিলেন, নিখিল জৈনের সঙ্গে আইনত বিয়ে হয়নি তার। তাদের মাঝে ‘লিভ ইন’ সম্পর্ক ছিলো। সুতরাং বিবাহবিচ্ছেদেরও কোনও প্রশ্ন ওঠে না।

নুসরাত বিয়ে হয়নি দাবি করলেও, সরকারি নথিতে তার স্বামীর নাম নিখিল জৈন এবং তিনি বিবাহিতা। লোকসভার ওয়েবসাইটেও বসিরহাটের সাংসদ অভিনেত্রীর নামে পাওয়া গিয়েছে একই তথ্য।

আরো দেখুন

Leave a Reply

সম্পর্কিত খবর

Back to top button
%d bloggers like this: