খেলাধুলা

মেসি জাদুতে উড়ে গেল বলিভিয়া

লিওনেল মেসির দুর্দান্ত পারফর্মেন্সে  বলিভিয়াকে ৪-১ গোলে হারিয়েছে স্কালোনি শিষ্যরা। আলবেসিলেস্তাদের হয়ে রেকর্ড ১৪৮’তম ম্যাচে জোড়া গোল ও এক অ্যাসিস্ট করেছেন মেসি। আকাশি-নীলদের হয়ে বাকি দু’টি গোল করেছেন গোমেজ ও বদলি হিসেবে নামা লাউতারো মার্টিনেজ। এই জয়ে ব্রাজিলের সাথে ফাইনালের আগে মুখোমুখি না হওয়া নিশ্চিত হয়ে গেছে মেসিদের।

প্রতিপক্ষ সহজ বলিভিয়াকে পেয়ে শুরু থেকেই একের পর এক আক্রমণ চালাতে থাকে আলবেসিলিস্তেরা। ফল পেয়ে যায় ম্যাচের ৬ মিনিটির মাথায়। ডি-বক্সের সামনে থেকে মেসির দৃষ্টিনন্দন ক্লিপ পাসে বল পায় অ্যালেহান্দ্রো গোমেজ। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে দুর্দান্ত শটে  লিড এনে দেয় সেভিয়ার এই মিডফিল্ডার।

এরপর প্রথমার্ধের বাকিটা সময় শুধুই মেসি জাদু। ৩১ মিনিটের মাথায় গোমেজকে ডি-বক্সের ভেতর ফেলে দেয় বলিভিয়ার জাস্টিয়ানো। এতে পেনাল্টি পেয়ে যায় আর্জেন্টিনা। স্পট কিক থেকে জোরালো শটে দলের হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেন এলএমটেন। এর ৯ মিনিটের পর আবারও মেসি জাদু। এবার ক্লাব সতীর্থ সার্জিও আগুয়েরোর লং শটে আলতো বল উঠিয়ে দেয় মেসি। সেই বল চলে যায় গোলকিপার ল্যাম্পের মাথার উপর দিয়ে। ততক্ষণে দাড়িয়ে দাড়িয়ে দেখা ছাড়া আর কিছুই করার ছিল না বলিভিয়ার গোলরক্ষকের। এতে ৪২ মিনিটে তৃতীয় বারের মতো বল ঢুকে যায় বলিভিয়ার জালে। ৪৫ মিনিট শেষে ৩ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় মেসিরা।

প্রথমার্ধের ৬৪ ভাগ বলের নিয়ন্ত্রণ রেখে অনটার্গেটে আর্জেন্টিনার শট ছিল ৬টি। বিপরীতে বলিভিয়া শট নিতে পেরেছিল মাত্র ১টি।

দ্বিতীয়ার্ধে আবারও সেই পুরনো আর্জেন্টিনা। বিরতি থেকে ফিরে গোল হজম করার রীতি এই ম্যাচেও বজায় রাখলো তারা। ৬০ মিনিটের মাথায় জাস্টিয়ানোর বাড়ানো বলে সাভেদ্রের টাচে আসরের দ্বিতীয় গোল পেয়ে যায় বলিভিয়া।

তবে এরপর আর ভুল করেনি স্কালোনি শিষ্যরা। গোল হজম করার ৪ মিনিটের মাথায় বদলি হিসেবে নামা লাউতারো মার্টিনেজ আকাশি-নীলদের হয়ে চতুর্থ গোলটি করে বলিভিয়ার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন।

এই জয়ে গ্রুপ পর্বের চার ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয় আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে, ৪ ম্যাচে কোনো পয়েন্ট না পাওয়া বলিভিয়ার এবারের আসর গ্রুপ পর্বেই শেষ।

আরো দেখুন

Leave a Reply

সম্পর্কিত খবর

আরো দেখুন
Close
Back to top button
%d bloggers like this: